https://www.a1news24.com
২৪শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, রাত ৩:১৬

স্কলার্সহোম মেজরটিলা কলেজে বঙ্গবন্ধু জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস পালন

স্কলার্সহোম মেজরটিলা কলেজের অধ্যক্ষ মো. ফয়জুল হক বলেছেন, আমরা গর্বিত কারণ একজন বঙ্গবন্ধুর জন্ম এদেশে হয়েছিল। তিনি হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি। যিনি এ ভূখণ্ডের স্বাধীন স্বীকৃতি আনায় নেতৃত্ব দিয়েছেন। তাঁর স্বপ্ন ও সহস্র ত্যাগ তিতিক্ষা বিশ্বের যেকোনো প্রান্তের নিপীড়িত মানুষের জন্য সুমহান দৃষ্টান্ত ও চিরদিনের প্রেরণা। জাতীয় শিশু দিবস, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা ও শিশুদের জন্য কল্যাণকর রাষ্ট্র গঠনে ভূমিকা রাখবে, এই আশাবাদ ব্যক্ত করছি।

রবিবার (১৭ মার্চ) স্কলার্সহোম মেজরটিলা কলেজে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০৪ তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস ২০২৪ উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভা, কবিতা আবৃত্তি ও কুইজ প্রতিযোগিতা এবং পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

কলেজের প্রভাষক শাহাব উদ্দিন আহমেদ ও প্রভাষক আন্নামা চৌধুরীর যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কলেজ শাখার ইনচার্জ জ্যেষ্ঠ প্রভাষক কাজী শাখাওয়াত হোসেন।দিবসের প্রথম প্রহরে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। সকাল ১০টায় কোরআন তেলাওয়াত ও গীতা পাঠের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের কার্যক্রম শুরু হয়। শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধু নিয়ে বক্তব্য রাখেন একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী অংকুর দাশ ও নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী অনন্যা সূত্রধর অহনা। শিক্ষকদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন বাংলা বিভাগের প্রভাষক শাহাব উদ্দিন আহমেদ, প্রাইমারি শাখার শিক্ষিকা তমালিকা তালুকদার ও প্রাইমারি শাখার দ্বায়িত্বরত ভাইস প্রিন্সিপাল নাহিদা খান।

বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন উপলক্ষে দোয়া ও বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করেন ইসলাম শিক্ষা বিভাগের প্রভাষক উসমান গণী। আলোচনা অনুষ্ঠান শেষে জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে আয়োজিত চিত্রাঙ্কন, কবিতা আবৃত্তি ও কুইজ প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার ও সনদপত্র তুলে দেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি সহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ। এতে বিভিন্ন বিভাগের প্রভাষক ও শিক্ষক, প্রাইমারি, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শ্রেণির শিক্ষার্থীসহ অভিভাবকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সার্বিক সহযোগিতা ও শৃঙ্খলা রক্ষায় ছিলেন প্রভাষক আমিনুল ইসলামের নেতৃত্বে বিএনসিসি এর ক্যাডেটবৃন্দ। বিজ্ঞপ্তি

আরো..