https://www.a1news24.com
১৮ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, রাত ১১:৫৩

সিলেট এমসি কলেজে ৪ দিনব্যাপী আলোকচিত্র প্রদর্শনী

সিলেট এমসি কলেজ ক্যাম্পাসে শুরু হয়েছে ৪ দিনব্যাপী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর ভাষ্কর্যের প্রতি বিদেশি নাগরিকদের সম্মান প্রদর্শনের কিছু ছবি নিয়ে ফোজিত শেখ বাবুর আলোকচিত্র প্রদর্শনী “শ্রদ্ধা। এছাড়াও রয়েছে বঙ্গবন্ধুর ওপর অনুচ্ছেদ লিখা প্রতিযোগিতা ও আলোচনা সভা।

৭ই মার্চ বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় সিলেট মুরারিচাঁদ (MC) কলেজ ক্যাম্পাস চত্বরে আলোকচিত্র প্রদর্শনীর ফিতা কেটে উদ্বোধন করেন পঞ্চাশ উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের শিক্ষক তাহমিনা বেগম। এসময় আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিথত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা ভবতোষ রায় বর্মণ। সভাপতিত্ব করেন মুরারিচাঁদ কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আবুল আনাম মো: রিয়াজ। প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রফেসর তোফায়েল আহমেদ।

এছাড়াও অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন মুরারিচাঁদ কলেজের উপাধ্যক্ষ প্রফেসর মো সাইফ উদ্দীন আহমদ, কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার বদরুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা সত্যেন্দু কুমার দাস তালুকদার, বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: সুরুজ মিয়া, বীর মুক্তিযোদ্ধা সুবেন্দু দাস বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী নাজিমুদ্দিনসহ গণমান্য ব্যক্তবর্গ।

আগামী ১০ মার্চ ৪ দিনব্যাপী এই আলোকচিত্র প্রদর্শনী শেষ হবে। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত সকলের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। অনুচ্ছেদ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হবে শেষ দিন সকাল ১১টায়। অনুষ্ঠানটির শুরু থেকে সহযোগিতায় ছিল ‌”থিয়েটার মুরারিচাঁদ”। এছাড়াও সাথে ছিলেন মোহনা সাংস্কৃতিক সংগঠন, কবিতা পরিষদ মুরারিচাঁদ কলেজ , প্রথম আলো বন্ধুসভার সদস্য বৃন্দ।

লন্ডনে বঙ্গবন্ধুর একটি ভাষ্কর্য ঘিরে গড়ে উঠেছে বিদেশি বন্ধুদের অকৃত্রিম শ্রদ্ধা সম্মান আর ভালোবাসার মেলবন্ধন। সিডনি স্ট্রিট, পূর্ব লন্ডন শহরের টাওয়ার হ্যামলেটে স্থাপিত হয় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের এই নান্দনিক আবক্ষ ভাষ্কর্যটি। ভারতীয় দু’জন শিল্পীর তৈরি পিতলের এই আবক্ষ ভাষ্কর্যটি স্থাপনের জন্য আবেদনের পর ২০১৪ সালের জুলাই মাসে লন্ডন টাওয়ার হ্যামলেটের কাউন্সিলের অনুমোদন পান প্রবাসি আওয়ামী লীগ নেতা আফসার খান সাদিক। পরবর্তীতে এর দুই বছর পর ১৭ ডিসেম্বর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আবক্ষ ভাষ্কর্যটি আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা প্রয়াত রাজনীতিবিদ সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত ও বাংলাদেশের হাইকমিশনার নাজমুল কাওনাইন। উদ্বোধনের সময় বিপুল সংখ্যক বিদেশি বন্ধু ও প্রবাসী বাঙালি উপস্থিত ছিলেন।
পূর্ব লন্ডনের বাঙালি অধ্যুষিত এলাকায় ব্রিটেনের মাটিতে বঙ্গবন্ধুর ভাষ্কর্য স্থাপন এটিই প্রথম। পূর্ব লন্ডনের সিডনি স্ট্রিট বাঙালি অধ্যুষিত এলাকা হলেও প্রতিদিনই বিপুল সংখ্যক লন্ডনের স্থানীয় বিদেশি বন্ধুরাসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের নাগরিকরা আসছেন বঙ্গবন্ধুর এই আবক্ষ ভাষ্কর্যটি একপলক দেখার জন্য।

সিডনি স্ট্রিটে এসে ভাষ্কর্যটি দেখে উৎসব-আনন্দে মেতে উঠছে, বিদেশি বন্ধুররা ভাষ্কর্যটির সামনে দাঁড়িয়ে বিভিন্ন দেশের সংস্কৃতি অনুসারে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি “শ্রদ্ধা” সম্মান ও ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ করছেন। প্রতিদিন বিপুল সংখ্যক বিদেশি বন্ধুদের উপস্থিতিতে আফসার খান সাদিকের বাগান বাড়িটি এখন মিনি জাদুঘরে পরিণত হয়েছে ও লন্ডনের ট্যুরিস্ট বাসগুলো পর্যটকদের নিয়ে এই স্থানে আসে। ২০১৮ সালে আলোকচিত্র শিল্পী ফোজিত শেখ বাবু বিশ্বের সবচেয়ে অবহেলিত রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠীর দুঃখ দুর্দশার চিত্র নিয়ে আলোকচিত্র প্রদর্শনী করতে বাংলাদেশ থেকে লন্ডনে যান। প্রদর্শনী চলাকালীন সময় ফোজিত শেখ বাবু সিডনি স্ট্রিটের বঙ্গবন্ধর ভাষ্কর্যটির সামনে দীর্ঘ সময় অতিবাহিত করেন। এসময় আবক্ষ ভাষ্কর্যটি ঘিরে বিদেশি বন্ধুদের বঙ্গবন্ধুর প্রতি “শ্রদ্ধা” সম্মান আর ভালোবাসার বহিঃপ্রাশের ছবি তুলেন। দিনভর ভাষ্কর্যটির সামনে বিদেশি বন্ধুদের সঙ্গে উৎসব-আনন্দে সময় কাটান।

আরো..