https://www.a1news24.com
২৪শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, সকাল ১০:৩৫

‘মোদীজির মতো এত নিচুমানের প্রধানমন্ত্রী দেখিনি, পদমর্যাদাকে টেনে নীচে নামিয়েছেন’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতে চলছে ১৮তম লোকসভা নির্বাচন। এবার ভোটের প্রচারে একটা বড় সময় জুড়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ‘ধর্ম’ নিয়ে মন্তব্য করেছেন, বিশেষ করে মুসলিমদের বিরুদ্ধে। পশ্চিমবঙ্গে গিয়েও তিনি বারবার বলেছেন, এ রাজ্যে হিন্দুরা দ্বিতীয় শ্রেণির নাগরিক হয়ে গেছেন। সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং নেতৃত্বাধীন কংগ্রেস সরকারের কাছে মুসলিমরাই ছিল চোখের মণি। মুসলিমদেরই সমস্ত সুযোগ-সুবিধায় অগ্রাধিকার দেওয়া হয়েছে। এবার মোদির সেই আক্রমণের জবাব দিলেন স্বল্পভাষী সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং। বললেন, তিনি কোনোদিন কোনো সম্প্রদায়কে বিভাজনের চোখে দেখেননি। কোনও ধর্মকে অন্য ধর্মের থেকে আলাদা দৃষ্টিতে দেখেননি।

আগামী ১ জুন শেষ দফার ভোটের আগে দেশবাসীর উদ্দেশে লেখা এক খোলা চিঠিতে বৃহস্পতিবার মনমোহন সিং বলেন, ‘এবারের ভোট প্রচার খুব ভালোভাবে দেখছিলাম। মোদিজি সারাক্ষণ জঘণ্য ঘৃণাভাষণ দিয়ে গিয়েছেন। যা অত্যন্ত বিভাজনের রাজনীতি। মোদিজি হলেন দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী যিনি ওই পদের মর্যাদাকে নীচে নামিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী পদের মর্যাদার যে গুরুত্ব তা ক্ষুণ্ণ করেছেন। দেশের আর কোনও প্রধানমন্ত্রী এতটা হীন ছিলেন না।’

তিনি আরও লিখেছেন, ‘উনি যেভাবে অসংসদীয় এবং নিচুমানের কথা বলেছেন তা বলার নয়। ওনার ভাষণের আদ্যপান্ত ভাষা ছিল একটি নির্দিষ্ট গোষ্ঠী অথবা বিরোধীদের নিশানা করে। ওরা আমার সম্পর্কেও ভুল বক্তব্য দিয়েছে।’

মনমোহন লিখেছেন, ‘আমি জীবনে কোনওদিন এক সম্প্রদায়ের সঙ্গে অন্যদের আলাদা করে দেখিনি। এটা বিজেপির বিশেষ অধিকার এবং এতেই ওরা অভ্যস্ত।’

দেশের মানুষের কাছে শান্তি ও সম্প্রীতি বজায় রাখার আবেদন জানিয়েছেন মনমোহন সিং আরও বলেন, দেশের উন্নতি ও প্রগতিশীল ভবিষ্যতের গ্যারান্টি একমাত্র কংগ্রেসেই দিতে পারে। সংবিধান অক্ষত রাখতে বদ্ধপরিকর কংগ্রেস। আমি দুহাত জড়ো করে দেশবাসীর কাছে আবেদন করছি, শান্তি, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি, সৌহার্দ্য, ভ্রাতৃত্বের পরিবেশ ফিরিয়ে আনুন। এই মুহূর্তে দেশের প্রতিটি মানুষের কর্তব্য এই বিরোধকামী শক্তির হাত থেকে দেশকে রক্ষা করা।

চিঠির শেষে আল্লামা ইকবালের একটি কবিতার পংক্তি উদ্ধৃত করে সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী লিখেছেন, ‘ফির উঠি আখির সদা তৌহিদ কি পাঞ্জাব সে, মর্দ-এ-কামিল নে জাগায়া হিন্দ কো ফির খোয়াব সে। জয়হিন্দ।’

সূত্র: দ্য ওয়াল, ওয়ানইন্ডিয়া

আরো..