https://www.a1news24.com
২২শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, রাত ৮:৪৩

বিদ্যুতের দাম বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি, কার্যকর পহেলা ফেব্রুয়ারি থেকেই

নিজস্ব প্রতিবেদক: নানা জল্পনা ও আলোচনার মধ্যে গ্যাসের দাম বাড়ানোর দুই দিনের মাথায় বিদ্যুতের দাম বাড়িয়েছে সরকার। নতুন দাম কার্যকর হবে পহেলা ফেব্রুয়ারি থেকেই।বৃহস্পতিবার বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় থেকে দাম বাড়ানোর প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

এতে বিদ্যুতের দাম পাইকারিতে বেড়েছে ৫ দশমিক ০৭৪ শতাংশ। অর্থাৎ পাইকারির প্রতি ইউনিটের গড় দাম ৬ টাকা ৭০ পয়সা থেকে বেড়ে হয়েছে ৭ টাকা ০৪ পয়সা।

আর খুচরা পর্যায়ে দমে বাড়ানো হয়েছে ৮ দশমিক ৪৮ শতাংশ। এতে খুচরায় প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের গড় দাম ৮ টাকা ২৫ পয়সা থেকে বেড়ে হয়েছে ৮ টাকা ৯৫ পয়সা।বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হবে বলে গত কয়েকদিন ধরেই বলে আসছিলেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু।

গত মঙ্গলবার বিদ্যুৎ উৎপাদনে ব্যবহার করা গ্যাসের দাম প্রতি ঘনমিটারে ৭৫ পয়সা বাড়ানো হয়। একইসঙ্গে কলকারখানায় ব্যবহৃত ক্যাপটিভ বিদ্যুতের গ্যাসের দামও প্রতি ঘনমিটারে বাড়ে ৭৫ পয়সা করে।

দাম বাড়ানোর বিষয়ে বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের প্রতিমন্ত্রী বলেন, অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। ভর্তুকি কমাতে বিদ্যুতের দামের সমন্বয় করতে বলা হয়েছে।

বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির প্রভাব অন্যান্য খাতে পড়বে কিনা এই প্রশ্নে তিনি বলেন, যেকোনো সমন্বয়ের একটা প্রভাবতো থাকেই। তবে যতোটা বাড়ানো হয়েছে, তাতে বাজারে বড় ধরণের প্রভাব পড়বে না।

অনেক আগে থেকেই ডলারের উর্ধ্বগতির কথা উল্লেখ করে নসরুল হামিদ বলেন, ডলারের মূল্যের সঙ্গে সমন্বয় করতেই বিদ্যুতের এই দাম বৃদ্ধি। তিনি বলেন, আর বিশ্বে জ্বালানির দাম বাড়লে এখন প্রতিমাসেই সমন্বয় করা হবে, যেটা প্রতিবেশী ভারতে করা হয়।

আসছে মার্চ থেকে প্রতিমাসের প্রথম সপ্তাহে আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে তেলের দামও সমন্বয় করা হবে বলে জানান নসরুল হামিদ।

আরো..