https://www.a1news24.com
২৪শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, সকাল ১০:২৬

বাংলাদেশের জায়গায় ভারত থাকতে কি করতেন আম্পায়াররা;

স্পোর্টস ডেস্ক: দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৪ রানে হেরেছে বাংলাদেশ। তবে এ ম্যাচে বেশ কিছু সিদ্ধান্ত বাংলাদেশের বিপক্ষে গিয়েছে। যা না হলে হয়তো ম্যাচটা খুব সহজেই জিততে পারত বাংলাদেশ। এমন ম্যাচের পর তাই স্বাভাবিকভাবেই আলোচনায় আম্পায়ারিং। যা নিয়েই এবার প্রশ্ন তুলেছেন নিউজিল্যান্ডের সাবেক পেসার ও ধারাভাষ্যকার সাইমন ডুল। বাংলাদেশের জায়গায় ভারত থাকতে কি করতেন আম্পায়াররা; সেই প্রশ্নও ছুড়ে দিয়েছেন তিনি।

বাংলাদেশ এবং দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচে বাজে আম্পায়ারিং নিয়ে ক্রিকবাজের আলোচনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ডুল। মাহমুদউল্লাহকে বিতর্কিত আউট দেওয়া ও চার রান স্কোরবোর্ডে যোগ না হওয়া নিয়ে ডুল বলেন, ‘আমি বলতে চাইছি, যেভাবে এই পদ্ধতি কাজ করছে, সেখানে কিছু একটা পরিবর্তন অবশ্যই আনতে হবে। কারণ এটা বিশ্রী একটা ভুল। একেবারেই বাজে সিদ্ধান্ত। কোনোভাবেই বলটা (মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের আউট সম্পর্কে) স্ট্যাম্পে আঘাত করতো না। একেবারে বন্দুকধারীর মত দ্রুতগতিতে আম্পায়ার হাত তুলেছে। এটা বাজে সিদ্ধান্ত ছিল। আর আমাদের বলতেই হবে পুরো টুর্নামেন্টেই আমরা খুব ভালো কিছু আম্পায়ারিং দেখেছি। কিন্তু এক্ষেত্রে সেটা ছিল না। তারচেয়ে বড় কথা, লেগবাইয়ে চার রান হওয়া দরকার ছিল।’

বাংলাদেশের জায়গায় ভারত থাকলে আম্পায়াররা এমন সিদ্ধান্ত জানাতেন কি সেই প্রশ্ন রেখেছেন তিনি। বলেন, ‘ধরা যাক, বিষয়টা ফাইনালে ঘটল। কিংবা বাংলাদেশের বদলে ভারত ছিল বিপরীতে দিকে। সেটাও একটা ফাইনালে। তাহলে কি পুরো ম্যাচ জুড়ে এমন কিছু সিদ্ধান্ত নিতে পারত আম্পায়াররা। নাকি সেটা খুব কঠিন হতো তাদের জন্য।’

ভবিষ্যৎতে এই ধরণের বিতর্ক এড়াতে আম্পায়ার্স কল ও এই ধরণের নিয়ম পরিবর্তনের পক্ষে ডুল। বলেন, ‘ধরা যাক, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শেষ বলে এটা ঘটল। আর একটা দল এমন বাজে সিদ্ধান্তের কারণে হেরে গেল। যেভাবে এইসব চলছে, তাতে কিছু পরিবর্তন আনতেই হবে। কারণ এখন প্রায়ই এসব হচ্ছে। প্রতিবারই এমন কিছু প্রশ্ন আমি করেছি আইসিসি টুর্নামেন্টের আগে বা পরে। তখন তারা বলে, আমাদের এখানে কিছু করার নেই। এটা খেলার ফলাফলে বড় কোনো প্রভাব ফেলবে না। আমি জানি না কীভাবে এই পরিবর্তন আসবে, বা কবে এই পরিবর্তন হবে। তবে কিছু একটা পরিবর্তন অবশ্যই আসতে হবে। এগুলো ম্যাচের ফল বদলে দিচ্ছে। আর আমরা এমনটা হতে দিতে পারি না।’

আরো..