https://www.a1news24.com
২১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, রাত ৩:১৮

নারীপক্ষ’র ৪০ বছরের পথচলার অভিজ্ঞতা নিয়ে গণমাধ্যম নেতৃবৃন্দের সঙ্গে মতবিনিময় সভা

আজ ৩০ বৈশাখ ১৪৩১/১৩ মে ২০২৪ সকাল ১১ টায় সিরডাপ মিলনায়তন ঢাকায় নারীপক্ষ’র ৪০ বছরের পথচলার অভিজ্ঞতা নিয়ে গণমাধ্যম নেতৃবৃন্দের সঙ্গে একটি মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সভায় বিভিন্ন সংবাদপত্র ও টিভি চ্যানেলের সম্পাদক, সহ-সম্পাদক, উপদেষ্টা সম্পাদক, বার্তা প্রধান, চীফ রিপোর্টার, সিনিয়র রিপোর্টার ও রিপোর্টার গণ অংশগ্রহণ করেন, এছাড়ও নারীপক্ষ’র সদস্য ও কর্মীগণ অংশগ্রহণ করেন।

সভাটি সঞ্জালনা করেন নারীপক্ষ’র সভানেত্রী গীতা দাস। সভায় নারীপক্ষ’র ৪০ বছরের পথচলার অভিজ্ঞতা ও অর্জন নিয়ে উপস্থাপনা প্রদান করেন নারীপক্ষ’র সদস্য ও প্রকল্প পরিচালক সামিয়া আফরীন ও কামরুন নাহার। নারীপক্ষ ১৯৮৩ সাল থেকে ৪০ বছর যাবত নারীর অবস্থা ও অবস্থান পরিবর্তনের লক্ষ্যে নারী অধিকার নিশ্চিতকরণ ও নারীর প্রতি সকল বৈষম্যের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার জন্য বিভিন্ন পর্যায়ে যে সকল কাজ করেছে তা উপস্থাপনার মধ্যেমে তুলে ধরা হয়। উপস্থাপনা শেষে মুক্ত আলোচনা সঞ্চালনা করেন নারীপক্ষ’র প্রচার সম্পাদক মাহফুজা মালা।

নারী আন্দোলনে নারীপক্ষ’র ভূমিকা, সাফল্য গাঁথা এবং নারী আন্দোলনের সাথে গণমাধ্যম কর্মীদের আরো কিভাবে সম্পৃক্ত করা যায় তা নিয়ে উপস্থিত সাংবাদ মাধ্যম প্রধানগণ মুক্ত আলোচনায় নিজেদের অভিজ্ঞতা ও মতামত বিনিময় করেন।

গোলাম মোর্তুজা, সম্পাদক, ডেইলি স্টার বাংলা, তিনি ৪০ বছর ধরে নারীপক্ষ’র এই পথ চলাকে সাধুবাদ জানিয়ে বলেন নারীপক্ষ একটি গতিশীল সংগঠন। নারীর এগিয়ে যাওয়ায় প্রতিবন্ধকতাগুলো নিরসনে নারীপক্ষ বিস্তৃতভাবে যে ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে তাতে গণমাধ্যম প্রতিনিধি হিসেবে আমরা পাশে থাকবো।

শ্যামল দত্ত, সম্পাদক, দৈনিক ভোরের কাগজ, তিনি ১৯৮৮ সাল থেকে নারীপক্ষ’র সাথে তাঁর দীর্ঘ পথচলার স্মৃতিচারন করে বলেন, আশির দশকের তুলনায় বর্তমানে রাষ্ট্র ও সমাজ নারীর জন্য আরো কঠিন যুদ্ধ ক্ষেত্র। গণমাধ্যম প্রতিনিধি হিসেবে, দেশ কি নারীবান্ধব হয়েছে কিনা সে বিষয়টি আমাদের অনুধাবন করতে হবে এবং রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও শিক্ষা সকল ক্ষেত্রে নারীর সমঅধিকার অর্জনে নারী আন্দোলনের সাথে সম্পৃক্ত হয়ে কাজ করতে হবে।

সাজ্জাদ হোসেন, বার্তা সম্পাদক, দৈনিক ইত্তেফাক, তিনি বলেন নারী মুক্তির দাবী আদায় নারীপক্ষ সাহসিকতার সাথে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে। নারীপক্ষ’র এই দুর্বার পথচলাকে তিনি সাধুবাদ ও শুভকামনা জানান। নারীপক্ষ’র ‘লড়াইটা ভাষারও’ আন্দোলনের সাথে সংহতি ব্যক্ত করে বলেন নারীর প্রতি শব্দ চয়নের ক্ষেত্রে গণমাধ্যম সচেতন থাকার চেষ্টা করে এবং ভবিষ্যতে এই বিষয়ে আমরা আরও সচেতন থাকবো।

মুস্তাফিজ শফি, সম্পাদক, দৈনিক প্রতিদিনের বাংলাদেশ, তিনি বলেন, ৪০ বছরে নারীপক্ষ’র অর্জন অনেক। প্রয়াত নাসরীন হকের সাথে এসিড সারভাইভারদের নিয়ে কাজের অভিজ্ঞতা বিনিময়ের মধ্য দিয়ে তিনি নারী আন্দোলনে তরুন নারীদের সম্পৃক্ত করার বিষয়টি গুরুত্বের সাথে তুলে ধরেন।

ড. মো: গোলাম রহমান, সম্পাদক, দৈনিক আজকের পত্রিকা তিনি বলেন নারীপক্ষ বিস্তৃত অর্জনের মধ্যে দিয়ে নিজের অস্তিত্ব টিকিয়ে রেখেছে। গণমাধ্যম সর্বদা নারী পুরুষ নির্বিচারে সাংবাদ প্রকাশ করে কিন্তু তারপরও এখনো কিছু কিছু ক্ষেত্রে সাংবাদিকদের দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তন প্রয়োজন। এই দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তনের মধ্যে দিয়েই জনসাধারনের মধ্যে নারী আন্দোলন এর গুরুত্ব ও ইতিবাচকতা ছড়িয়ে পড়বে। মুক্ত আলোচনা শেষে সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভা শেষ করেন নারীপক্ষ’র আন্দোলন সম্পাদক সাফিয়া আজীম।

আরো..