https://www.a1news24.com
১৬ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, রাত ১:৫৩

দুধ ও আনারস খেলে কি আসলেই বিষক্রিয়া হয়, যা বলছেন পুষ্টিবিদ

অনলাইন ডেস্ক: দুধ ও আনারস একসঙ্গে খেলে বিষক্রিয়া তৈরি হয়, এমনকি মানুষের মৃত্যুরও ঝুঁকি থাকে―গ্রাম ও শহরে এমনটাই প্রচলিত রয়েছে। এ কারণে অনেক সময় বাসা-বাড়িতে দুধ থাকলে আনারস আনতে দেয়া হয় না কিংবা আনারস খাওয়া হলে তাকে দুধ খেতে দেয়া হয় না।

দুধ ও আনারস একসঙ্গে খাওয়ার পর কি আসলেই মানুষের মৃত্যু ঝুঁকি থাকে বা মৃত্যু হয়? নাকি এটি কেবলই প্রচলিত একটি ধারণা। সম্প্রতি দেশের একটি সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে এ ব্যাপারে কথা বলেছেন রাজধানীর পপুলার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রধান পুষ্টিবিদ নিশাত শারমিন নিশি। এবার তাহলে এ ব্যাপারে জেনে নেয়া যাক।

দুধের পুষ্টিগুণ: দুধকে সবসময় আদর্শ খাবার বলা হয়। কার্বোহাইড্রেট, প্রোটিন, ভিটামিন, মিনারেলস, ক্যালসিয়াম, রিবোফ্লাভিন ও ফ্যাটসহ নানা উপকারী উপাদান রয়েছে দুধে। দুধ হচ্ছে প্রোটিনের উৎস্য। পেশি তৈরিতে নিয়মিত দুধ পান করলে উপকার মিলে। একই সঙ্গে শক্তিও যোগান দেয়। শক্তির উৎস্য হিসেবে নিয়মিত দুধ পান করা যেতে পারে। এমন অনেকেই রয়েছেন যাদের ওজন বাড়তে চায় না। বাড়তি ক্যালোরির মাধ্যমে ওজন বাড়ানোর চেষ্টা করলেও ফল আসে না। তারা দুধ বা দুধের তৈরি খাবার বা প্রোটিন শেক খেতে পারেন।

আনারসের পুষ্টিগুণ: আনারসে ক্যালোরির মাত্রা খুবই কম থাকে। প্রতি ১০০ গ্রাম আনারসে ক্যালোরি পাওয়া যায় ৪০-৫০ গ্রাম। ভিটামিন বি, সি, রিবোফ্লাভিন, থায়ামিন, ফোলেট ক্যালসিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ ও ফসফরাস থাকে। এছাড়াও থাকে ডায়েটারি ফাইবার।

আনারস খাওয়ায় উপকারিতা রয়েছে অনেক। কারও যদি কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা থাকে, তাহলে আনারস খেলে উপকার মিলে। দেশে ক্যানসার রোগীর সংখ্যা বাড়ছে দিন দিন। আর আনারসে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান ক্যানসারের বিরুদ্ধে লড়াই করে। একই সঙ্গে মরণব্যাধি এই রোগের ঝুঁকি কমায়। এছাড়া জ্বর ও জন্ডিসজাতীয় অসুখে লিভার দুর্বল থাকে। এ রোগীদের মুখে রুচি তেমন থাকে না। এ ক্ষেত্রে আনারস খেলে ভালো উপকার পাওয়া যায়। আবার কৃমিনাশক হিসেবেও কাজ করে। আর্থ্রাইটিসের ঝুঁকি কমাতেও দারুণ কার্যকর ভূমিকা পালন করে আনারস।

দুধ-আনারস একসঙ্গে খেলে কি আসলেই বিষক্রিয়া হয়: দুধ ও আনারস একসঙ্গে খেলে ক্ষতি হয়―এমন কোনো বৈজ্ঞানিকভাবে প্রমাণ নেই। আনারস হচ্ছে ভিটামিন সি সমৃদ্ধ একটি ফল। সাধারণত ফল দিয়ে দুধ কম খাওয়া হয়ে থাকে। আর যদিও খাওয়া হয় তাহলে সেই ফল মিষ্টিজাতীয় হয়ে থাকে। কোনো ধরনের টক ফল বা খাবার দুধের সঙ্গে বা মিশিয়ে খাওয়া হয় না।

এদিকে দুধ দিয়ে যেহেতু আনারসের মতো টক খাবার কখনো খাওয়া হয় না, এ কারণে পাকস্থলী হজমে অভ্যস্ত নয়। অনেকেরই ল্যাকটোজ ইনটলারেন্স থাকে। ফলে অ্যাসিডিক খাবার খাওয়ার পর বদহজম বা হজমে সমস্যা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। কিন্তু দুধের সঙ্গে আনারস খেলে বিষক্রিয় তৈরি হয় বা মৃত্যুঝুঁকি থাকে, তা বলার কোনো সুযোগ নেই।

আরো..