https://www.a1news24.com
১৮ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, রাত ১১:৪৫

চুমুকাণ্ড: সেই নিপুণের দলে যোগ দেয়া নিয়ে যা বললেন পীরজাদা হারুন

বিনোদন ডেস্ক: আসন্ন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে বিশাল চমক রাখার কথা আগে থেকেই বলে আসছিলেন চিত্রনায়িকা নিপুণ। শুরুতে প্যানেলে সভাপতি পদে প্রার্থী পাচ্ছেন না বলে গুঞ্জন থাকলেও পরে এ পদের জন্য সামনে নিয়ে আসেন অভিনেতা মাহমুদ কলিকে। এবার আরও একটি চমক দেখালেন নিপুণ।

এ অভিনেত্রী জানালেন―মাহমুদ-নিপুণ প্যানেল থেকে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন বরেণ্য অভিনেতা পীরজাদা শহীদুল হারুন। আর নিপুণের প্যানেলে গুণী এই অভিনেতার প্রার্থী হওয়ার খবরে অবাক হয়েছেন অনেকে।

গতবার নির্বাচনে এ নায়িকা অভিযোগ করেছিলেন তাকে চুমু খেতে চেয়েছিলেন পীরজাদা হারুন। এমনকী এ অভিযোগ তুলে জুতাপেটাও করতে চেয়েছিলেন। অভিনেতাও অবশ্য রাগ থেকে কটু কথা বলেছিলেন নিপুণকে। এ থেকে একজনের সঙ্গে আরেকজনের কথা বলা কিংবা মুখ দেখাদেখিও বন্ধ ছিল। তবে হঠাৎ করেই এমন কী হলো, সেই পীরজাদা হারুনকে নিজের প্যানেলে ডাকলেন চিত্রনায়িকা নিপুণ।

এ ব্যাপারে মঙ্গলবার (২ এপ্রিল) সন্ধ্যায় অভিনেতা পীরজাদা হারুন বলেন, আসলে শিল্পীদের মধ্যে কখনো কোনো বিভেদ হয় না। দিন শেষে আমরা সবাই এক। খেলার কথায় যদি বলি তাহলে গতবারের নির্বাচনে আমি ছিলাম আম্পায়ার। আর এবার সেই আম্পায়ার থেকে খেলোয়াড় হয়ে মাঠে নামছি।

এ নির্বাচনে নির্বাহী সদস্য পদে অংশ নিচ্ছেন বলেও জানান তিনি। এ সময় প্রশ্ন উঠে―গতবার চুমু খেতে চাওয়া নিয়ে তার বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ করেছিলেন নিপুণ। তাহলে এবার সেই অভিযুক্তের সঙ্গেই কেন নির্বাচনে অংশ নেয়া? এ ব্যাপারে বর্ষীয়ান এই অভিনেতা বলেন, নিপুণ আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছিল, যদিও অভিযোগটি ঠিক নয়।

পীরজাদা শহীদুল হারুন বলেন, নিপুণ যে অভিযোগ করেছিল সেটি কিন্তু সে নিজ কানে শোনেনি। তাকে আসলে কেউ একজন ভুল বুঝিয়েছিল। এ কথা সে নিজেই জানাবে সবাইকে। আর আমি চাই সব শিল্পীদের একত্র করতে। এ জন্য নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি।

এর আগে এদিন বিকেলে বিএফডিসিতে শিল্পী সমিতির ২০২৪-২৫ মেয়াদে সভাপতি প্রার্থী মাহমুদ কলির নেতৃত্বে মনোনয়নপত্র জমা দেয়া হয়। সেখানেই চিত্রনায়িকা নিপুণের সঙ্গে পীরজাদা শহীদুল হারুনকে দেখা যায়।

প্রসঙ্গত, ২০২২ সালের ২৮ জানুয়ারি চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২০২২-২৩ মেয়াদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে প্রধান নির্বাচন কমিশনের দায়িত্ব পালন করেন পীরজাদা শহীদুল হারুন। এই নির্বাচনে ভোটগ্রহণের পর ফলা ঘোষণা হলে ভোট কারচুপিসহ এ নিয়ে তর্ক-বিতর্ক, মামলা এবং যা আদালত পর্যন্ত গড়ায়।

নির্বাচনে পরাজিত হলে জাতীয় প্রেসক্লাবে অভিনেতা পীরজাদা শহীদুল হারুনের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানিসহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ তুলেছিলেন নিপুণ। তখন সেই অভিযোগ মিথ্যা ও বানোয়াট বলে অভিনেতা বলেছিলেন, সে একটি বাজে মেয়ে। তার স্বভাব চরিত্রে সমস্যা রয়েছে। এ জন্য নিজেকে স্বাভাবিক জীবনযাত্রায় নিয়ন্ত্রণ রাখতে না পেরে অস্বাভাবিক।

আরো..